‘লাঙ্গল’ পত্রিকার শেষ সংখ্যা প্রকাশ।

১৯২৫ সালের  ১৬ ডিসেম্বর কলকাতা থেকে এটি প্রথম প্রকাশিত হয়। পরবর্তীকালে এটি মুজফফর আহমদের সাপ্তাহিক পত্রিকা ‘গণবাণী’র সাথে একীভূত হয়ে যায়। ‘লাঙল’ পত্রিকাটি ‘শ্রমিক-প্রজা-স্বরাজ-সম্প্রদায়’ নামে শ্রমিক শ্রেণীর একটি সংগঠনের মুখপত্র ছিল। ‘কৃষক–প্রজা–স্বরাজ–সম্প্রদায়’র আহ্বায়ক হিসেবে প্রথম সংখ্যাতেই নজরুল সংগঠনের একটি ঘোষণাপত্র প্রকাশ করেন। কাজী নজরুল ইসলাম ‘লাঙ্গল’র সম্পাদক হলেও পত্রিকার প্রচ্ছদে তাঁর নাম থাকতো মুখ্য পরিচালক হিসেবে, আর সম্পাদক হিসেবে থাকতো মণিভূষণ মুখোপাধ্যায়ের নাম।

পত্রিকাটির প্রত্যেক সংখ্যার শুরুতে থাকতো চণ্ডীদাসের বাণী, ‘শুনহ মানুষ ভাই/ সবার উপরে মানুষ সত্য/ তাহার উপরে নাই।’ পত্রিকার প্রচ্ছদে, গলায় তাবিজ পড়া, খালি গায়ে- লাঙল কাঁধে একজন কৃষকের ছবি থাকত।  লাঙলের প্রথম সংখ্যার প্রধান আকর্ষণ ছিল, ‘সাম্যবাদী’ শিরোনামে এগারোটি কবিতা। কৃষক, নারী, দিনমজুর, কুলি ইত্যাদি জনগোষ্ঠীর পীড়িত ও নির্যাতিত জীবন বর্ণনাত্মক এ কবিতাগুলি পরবর্তীকালে পুস্তক আকারে প্রকাশিত হয়। লাঙলের বিভিন্ন সংখ্যায় নজরুল ইসলামের কিছু বিখ্যাত কবিতা প্রকাশিত হয়। যেমন, ‘কৃষাণের গান’, ‘সব্যসাচী’ এবং ‘সর্বহারা’। লাঙ্গলে অন্যান্য লেখকদের রচনার বিষয়বস্ত্ত ছিল কার্ল মার্কস, লেনিন বা সোভিয়েত রাশিয়ার রাজনৈতিক গতিধারা, চীনের পুনর্জাগরণ ইত্যাদি। ১৫ টি সংখ্যা বের হবার পরে এর প্রকাশনা বন্ধ হয়ে যায়।

অনুসন্ধান

Generic selectors
Exact matches only
Search in title
Search in content
Search in posts
Search in pages

আর্কাইভ

বায়ুদূষণের মাত্রা

সর্বাধিক পঠিত

Sorry. No data so far.