বৈশাখের গান

এলো এলো রে বৈশাখী ঝড় এলো এলো রে

কাজী নজরুল ইসলাম

এলো এলো রে বৈশাখী ঝড় এলো এলো রে,

ঐ বৈশাখী ঝড় এলো এলো মহীয়ান সুন্দর।

পাংশু মলিন ভীত কাঁপে অম্বর চরাচর থরথর।।

ঘনবন–কুন্তলা বসুমতী সভয়ে করে প্রণতি,

সভয়ে নত চরণে ভীতা বসুমতী।

সাগর তরঙ্গ মাঝে তারি মঞ্জীর যেন বাজে বাজে রে

পায়ে গিরি–নির্ঝর–ঝরঝর ঝরঝর।।

ধূলি–গৈরিক নিশান দোলে ঈশান গগন চুম্বী,

ডম্বরু ঝল্লরী ঝাঁঝর ঝনঝন বাজে

এলো ছন্দ বন্ধন–হারা এলো রে

এলো মরু–সঞ্চর বিজয়ী বীরবর।।

রাগঃ ইমন মিশ্র

তালঃ কাহার্‌বা

 

এসো হে বৈশাখ

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

 

এসো হে বৈশাখ, এসো এসো
তাপস নিঃশ্বাস বায়ে
মুমূর্ষুরে দাও উড়ায়ে
বৎসরের আবর্জনা দূর হয়ে যাক যাক যাক
এসো এসো…

যাক পুরাতন স্মৃতি
যাক ভুলে যাওয়া গীতি
যাক অশ্রুবাষ্প সুদূরে মিলাক
যাক যাক
এসো এসো…

মুছে যাক গ্লানি ঘুচে যাক জরা
অগ্নি স্নানে শুচি হোক ধরা
রসের আবেশ রাশি
শুষ্ক করি দাও আসি
আনো আনো, আনো তব প্রলয়ের শাঁখ
মায়ার কুঁজঝটি জাল যাক, দূরে যাক যাক যাক
এসো এসো…

 

মেলায় যাইরে।।

কথাঃ মাকসুদুল হক
কন্ঠঃ মাকসুদুল হক
ব্যান্ডঃ ফিডব্যাক
অ্যালবামঃ মেলা

লেগেছে বাঙালীর ঘরে ঘরে
একি মাতনদোলা
লেগেছে সুরেরই তালে তালে
হৃদয় মাতনদোলা

বছর ঘুরে এল আরেক প্রভাতী ফিরে এল
সুরেরই মঞ্জুরী
পলাশ শিমুল গাছে লেগেছে আগুন
এ বুঝি বৈশাখ এলেই শুনি……..

মেলায় যাইরে…মেলায় যাইরে…মেলায় যাইরে…মেলায় যাইরে
বাসন্তী রঙ শাড়ি পড়ে ললনারা হেঁটে যায়
মেলায় যাইরে…মেলায় যাইরে…মেলায় যাইরে…মেলায় যাইরে
বখাটে ছেলের ভিড়ে ললনাদের রেহাই নাই
মেলায় যাইরে…মেলায় যাইরে…মেলায় যাইরে…মেলায় যাইরে

লেগেছে রমনীর খোঁপাতে
বেলী ফুলের মালা
বিদেশী সুগন্ধি মেখে আজ
প্রেমের কথা বলা
রমনা বটমুলে গান থেমে গেলে
প্রখর রোদে এ যেন মিছিল চলে
ঢাকার রাজপথে রঙের মেলায়
এ বুঝি বৈশাখ এল বলেই……..

মেলায় যাইরে…মেলায় যাইরে…মেলায় যাইরে…মেলায় যাইরে
বাসন্তী রঙ শাড়ি পড়ে ললনারা হেঁটে যায়
মেলায় যাইরে…মেলায় যাইরে…মেলায় যাইরে…মেলায় যাইরে
বখাটে ছেলের ভিড়ে ললনাদের রেহাই নাই
মেলায় যাইরে…মেলায় যাইরে…মেলায় যাইরে…মেলায় যাইরে…

রঙে ভরা বৈশাখ

আইলো আইলো রে রঙ্গে ভরা বৈশাখ আবার আইলো রে
পাগলা মনে রঙ্গিন চোখে, নাগরদোলায় বছর ঘুরে
একতারাটার সুরটা বুকে, হাজার তালের বাউল সুরে
দেশটা জুড়ে খুশির ঝড়ে একটা কথাই সবার মনে
আইলো আইলো রে-
আইলো আইলো রে রঙ্গে ভরা বৈশাখ আবার আইলো রে

লাল পাড়ের ওই শাড়ির আচল, আলতা পায়ে খুশির নাচন
ইলশে ভাজা পান্তা খাওয়া, সব বাধার আজ খুলছে বাঁধন
পাগলা মনের খুশির ভিড়ে বৈশাখী রঙ লাগলো প্রাণে
আইলো আইলো রে-
আইলো আইলো রে রঙ্গে ভরা বৈশাখ আবার আইলো রে

গাছের ডালে আমের মুকুল, আকাশ মেঘে সাজলো দুপুর
হালখাতা সব হিসেব শেষে, আসলো বছর নতুন বেশে
এক বাণীতে সব বাঙ্গালি খুশির মেলায় দেশটা হাসে
আইলো আইলো রে
আইলো আইলো আইলো রে রঙ্গে ভরা বৈশাখ আবার আইলো রে
পাগলা মনে রঙ্গিন চোখে নাগরদোলায় বছর ঘুরে
একতারাটার সুরটা বুকে হাজার তালের বাউল সুরে
দেশটা জুড়ে খুশির ঝড়ে একটা কথাই সবার মনে
আইলো আইলো রে
আইলো

দীপক রাগ গ্রীষ্মকালের রাগ: