১৯৬৪:সাহিত্যিক ও শিক্ষাবিদ শামসুন নাহার মাহমুদের মৃত্যু।

১৪এপ্রিল / ১লা বৈশাখ

ফেনী মহকুমার ধনী মুসলিম পরিবারে জন্ম নেওয়া বেগম শামসুন নাহার মাহমুদ  (১৯ অক্টোবর, ১৯০৮) ছিলেন বিশিষ্ট সাহিত্যিক, শিক্ষাবিদ, রাজনীতিবিদ। মুসলিম সমাজে নারীদের শিক্ষার জন্য ও অবরোধপ্রথার বিরুদ্ধে লড়াই করে গিয়েছেন। সমাজের অবরোধপ্রথার বিভিন্ন প্রতিকূলতা পাড়ি দিয়ে তিনি এম.এ পাশ করেন। ইতিমধ্যেই তিনি সাহিত্য সাধনা ও শিক্ষকতার কাজ শুরু করে দিয়েছিলেন। শামসুন নাহার গুরুত্বপূর্ণ শিক্ষাবিদ হিসাবে সমাজে হাজির ছিলেন। কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের গভর্নিং বডির মেম্বার হবার পাশাপাশি তিনি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা ভাষার পরীক্ষক ছিলেন।এছাড়াও তার চেষ্টায় ১৯৬১ সালে পঙ্গু শিশু পুনর্বাসন কেন্দ্র’ স্থাপিত হয়।সাহিত্যনুরাগী শামসুন নাহারের প্রথম কবিতা ছাপা হয় মুহম্মদ শহীদুল্লাহর সম্পাদিত মাসিক পত্রিকা ‘আঙ্গুর’-এ। তাঁর প্রকাশিত গ্রন্থ সমূহের মধ্যেঃ পূণ্যময়ী (১৯২৫)।ফুল বাগিচা (১৯৩৫), বেগম মহল (১৯৩৬), রোকেয়া জীবনী (১৯৩৭), শিশুর শিক্ষা (১৯৩৯), আমার দেখা তুরস্ক (১৯৫৫), নজরুলকে যেমন দেখেছি (১৯৫৮) ।এছাড়া তিনি স্কুলের পাঠ্য পুস্তকও রচনা করেছিলেন, এগুলো- সবুজ পাঠ, কিশোর সাথী, তাজমহল পাঠ, নতুন তাজমহল পাঠ,বিচিত্র পাঠ্য ইত্যাদি।ঢাকা ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের দুটি ছাত্রীনিবাসের নাম তাঁর নামানুসারে রাখা হয়।

অনুসন্ধান

Generic selectors
Exact matches only
Search in title
Search in content
Search in posts
Search in pages

আর্কাইভ

বায়ুদূষণের মাত্রা

সর্বাধিক পঠিত

Sorry. No data so far.