৩১ জ্যৈষ্ঠ,১৪ জুন

১৯৯৭

মাগুরছড়া গ্যাসক্ষেত্রে বিষ্ফোরন, বিশাল ক্ষয়ক্ষতি, ন্যায্য ক্ষতিপূরণ মিলেনি এখনো।  

১৯৯৭ সালের ১৪ জুন রাত ১টা ৪৫ মিনিটে এ বিস্ফোরণ ঘটে।

পরিবেশবাদীদের তথ্য মতে, মাগুরছড়া বিস্ফোরণে ৬৩ প্রজাতির পশু-পাখি ধ্বংস হয়। মোট ক্ষয়ক্ষতি ধরা হয় ১৫ হাজার কোটি টাকা। ক্ষয়ক্ষতির কিছু শোধ করলেও বন বিভাগ ও গ্যাসের জন্য কোনো ক্ষতিপূরণ পাওয়া যায়নি। দীর্ঘ ১৮ বছরেও ক্ষতিগ্রস্তদের দাবি করা ক্ষতিপূরণের বিষয়টি এখনো অমীমাংসিত।

১৪ নং ব্লকের মাগুরছড়ার মৌলভীবাজার-১ গ্যাসকূপ খননের সময় ৮৫০ মিটার গভীরে যেতেই বিস্ফোরণ ঘটে।  বিস্ফোরণে প্রায় ৫০০ ফুট উচ্চতায় লাফিয়ে উঠা আগুনের লেলিহান শিখায় লণ্ডভণ্ড করে দিয়েছিল বিস্তীর্ণ এলাকা। আগুনের শিখায় গ্যাসফিল্ড সংলগ্ন লাউয়াছড়া রিজার্ভ ফরেস্ট, মাগুরছড়া খাসিয়াপুঞ্জি, জীববৈচিত্র্য, বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন, ফুলবাড়ী চা বাগান, সিলেট-ঢাকা ও সিলেট- চট্টগ্রাম রেলপথ এবং কমলগঞ্জ-শ্রীমঙ্গল সড়কে ব্যাপক ক্ষতি হয়।

বিস্ফোরণে শ্রীমঙ্গল-কমলগঞ্জ ১৫ কিলোমিটার (৩৩ হাজার কেভি) বৈদ্যুতিক লাইন পুড়ে যায়। ৬৯৫ হেক্টর বনাঞ্চলের গাছ, পরিবেশ ও জীববৈচিত্রের ব্যাপক ক্ষতি হয়। এছাড়া ২৪৫ বিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস উবে যায়।  যার বাজার মূল্য ৫০ কোটি ডলার।

গ্যাসকূপ বিস্ফোরণের পরিত্যক্ত এলাকার উত্তর টিলায় সবুজায়ন করা হয়েছে। বিস্ফোরণ হওয়া মূল কূপটি এখনো পুকুরের মতো বড় গর্ত হয়ে আছে। চারদিকে কাঁটাতারের বেড়া দিয়ে নিরাপত্তা বেষ্টনি তৈরি করা হয়েছে।

দুই বছর পর ফুলবাড়ি চা বাগান, মাগুরছড়া খাসিয়া পুঞ্জির বাড়ি-ঘর, পান জুম এলাকার ক্ষয়ক্ষতি বাবদ আংশিক টাকা দেয় ইউনোকল। এছাড়া দুর্ঘটনাস্থলের কাছাকাছি কমলগঞ্জ শ্রীমঙ্গল সড়কের পাশে সামাজিক বনায়নের জন্য তিনজনকে ১০ লাখ টাকা ক্ষতি দেয়া হয়। দীর্ঘ ৬ মাস কমলগঞ্জ শ্রীমঙ্গল সড়ক যোগাযোগ বন্ধ থাকার কারণে বাস মালিক সমিতিকে ২৫ লাখ টাকা দেয়া হয়। এছাড়াও বিচ্ছিন্নভাবে বিভিন্ন সময়ে কিছু ক্ষতিপূরণ দেয়া হয়েছে। কিন্তু পরিবেশ ও গ্যাস বাবদ কোনো ক্ষতিপূরণ এখনও পাওয়া যায়নি।

দুর্ঘটনার পর তৎকালীন সরকারের খনিজ ও জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মাহফুজুল ইসলামকে প্রধান করে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছিল। তদন্ত কমিটি ১৯৯৭ সালের ৩০ জুলাই মন্ত্রণালয়ে প্রতিবেদন পেশ করে। তাদের প্রতিবেদন অনুযায়ী অক্সিডেন্টালের দায়িত্বহীনতাকেই দায়ি করা হয় বলে সংশ্লিষ্টরা জানায়।

২০১৭

চট্টগ্রাম, রাঙামাটি, বান্দরবানসহ পাঁচ জেলায় পাহাড় ধসে নিহত হয়েছে ১৪৭ জন। মঙ্গলবার ১৩০ জনের লাশ পাওয়া গেলেও বুধবার নতুন করে যোগ হয়েছে আরও ১৩ লাশ।

পাহাড়ে শোকের মাতম

পাহাড় ধস – চ্যানেল নাইন

২০১৪

রাজধানীর মিরপুরের কালশীতে বিহারি ক্যাম্পে ১০ জন নিহত। স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান এই ঘটনাকে দুর্ঘটনা হিসেবে উল্লেখ করেন।

বিদ্যুৎ সংযোগ নিয়ে ঝামেলার জের ধরে, শবে-বরাতে আতশবাজী পোড়ানোকে কেন্দ্র করে প্রায় দু ঘণ্টা ধরে সংঘর্ষের পর সকাল ৭টার দিকে স্থানীয় বাঙালীরা ক্যাম্পের কয়েকটি ঘরে তালা ঝুলিয়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। এসময় আগুন নেভাতে আসা বিহারীদের ওপর বাঙালীরা হামলা চালায়। পুলিশও নির্বিচারে গুলি চালায়। অগ্নিকাণ্ডের দেড় ঘণ্টা পর ঘটনাস্থলে ফায়ারসার্ভিসের ৩টি ইউনিট গিয়ে আগুন নেভায়। একটি ঘরে একই পরিবারের ৮ জন পুড়েঅঙ্গার হয়। তারা হলেন- ইয়াসিন আলীর স্ত্রী বেবী আক্তার (৪৫), তিন মেয়ে শাহানি (২০), আফসানা (১৮), রুখসানা (১৪), যজম ছেলে লালু ও ভুলু (১২), পুত্রবধূ শিখা (১৯) ও শাহানির ছেলে মারুফ (৩)। ইয়াছিনের ঘরে তালা ঝুলিয়ে আগুন দেয়ার পর তার ছেলে আশিক তাদেরকে উদ্ধার করতে গিয়েছিলেন। এ সময় হামলাকারীরা আশিকের মাথায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপ দেয়। সেখানেই আশিক অগ্নিদগ্ধ হয়ে মারা যান। পাশাপাশি ঘটনাস্থল থেকে অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় বেবি আক্তারের আরেক মেয়ে ফারজানাকে (১৬) উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি করা হয়।

হারিস ও আবু হোসেন নামের দুজন বিহারির দাবি, স্থানীয় বাঙালিদের বাড়িতে বিদ্যুতের লাইন নেয়া নিয়ে এ ঘটনা ঘটেছে৷ পুলিশের উপস্থিতিতে ভোরে স্থানীয় বাঙালিরা প্রথমে বিহারি ক্যাম্পে হামলা করে৷

আরো জানতে-

-> শাহ আমানতে ১৩৮ টি স্বর্ণবার উদ্ধার।

২০১৩

২০২১ সালে বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশ হতে পারবে না।- বিশ্বব্যাংক

-> ব্যক্তিপর্যায়ে এবং সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কাছে বিদ্যুৎ সংস্থা ও কোম্পানিগুলোর পাওনা প্রায় তিন হাজার কোটি ১৯৯ টাকা।

২০১১

পুলিশের গাড়ি কিনতে নীতিমালা লঙ্ঘন। গুনতে হবে অতিরিক্ত সাড়ে ছয় কোটি টাকা।- ইত্তেফাক।

-> মুক্তিযোদ্ধা কোটায় চাকরি নিতে ভূয়া সনদ ব্যবহার। শিক্ষকপদে ১৫২ প্রার্থীর মুক্তিযোদ্ধা সনদ ভূয়া।

-> নিজ প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের প্রাইভেট পড়ানো যাবে না।-কোচিং বন্ধে নীতিমালা ২০১২ চূড়ান্ত।

২০০৩

আদমজী পাটকলের সামনে ৭ হাজার গাছ না কাটার জন্য পরিবেশবাদীদের সমাবেশ।

২০০২

প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁস। 

১৯৭১

পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী রাজাকারদের সহযোগিতায়, সিলেট জেলার আদিত্যপুর গ্রামে ৬৩ জন বাঙ্গালী হিন্দুকে হত্যা করে।

গভীর রাতে মুক্তিযোদ্ধারা নৌকাযোগে পাকিস্তানীদের মূল ঘাঁটি কোটালীপাড়া থানা আক্রমণ করে। মুক্তিবাহিনীর আকস্মিক আক্রমণে পাকসেনা, পুলিশ এবং রাজাকারসহ ৫০ জনের মৃত্যু হয়। মুক্তিযোদ্ধা ইব্রাহিম শহীদ হন।

১৮১১

“আংকেল টমস কেবিন” গ্রন্থের লেখিকা হ্যারিয়েট বিচার স্টো’র জন্ম।